রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১২:০৩ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম:
লক্ষ্মীপুরে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ও ক্রীড়া সামগ্রী বিতরণ লক্ষ্মীপুর পৌরসভার সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী আব্দুল মতলব’র ব্যাপক গণসংযোগ রায়পুরে বেদে ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর শিক্ষার্থীদের মাঝে ১৫ লাখ টাকার চেক বিতরণ রায়পুরে নবনির্মিত শহীদ মিনার উদ্বোধন করলেন নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন এমপি রায়পুর উপজেলা ডিজিটাল সেন্টার উদ্বোধন করেন এড. নয়ন এমপি রায়পুরে করোনা আক্রান্তদের মাঝে অক্সিজেন সিলিন্ডার বিতরণ উদ্বোধন শোক দিবসে লক্ষ্মীপুরে আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা ও দোয়া লক্ষ্মীপুরে বিভিন্ন ইউনিয়নে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি উপহার দিলেন নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন এমপি রায়পুর হাসপাতালে করোনা রোগীদের জন্য অক্সিজেন সিলিন্ডার হস্তান্তর রায়পুরে ক্ষতিগ্রস্থ উদ্যোক্তাদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর প্রনোদনার চেক বিতরণ

আলোকিত স্কুলের শিশুদের মাঝে স্কুল ব্যাগ বিতরণ ও আনন্দভোজ

অনলাইন সম্পাদনা / ৩৭২ পড়া হয়েছে:
প্রকাশের সময়: রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১২:০৩ পূর্বাহ্ন

সদর উপজেলা প্রতিনিধি ॥ লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ১৮ নং কুশাখালি ইউনিয়নের প্রত্যন্ত গ্রাম ফরাশগঞ্জে অবস্থিত সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের স্কুল ‘ডা. মোমতাজ উদ্দিন আলোকিত স্কুল এন্ড কলেজের’ শতাধিক শিক্ষার্থীর মাঝে বিনামূল্যে স্কুল ব্যাগ বিতরণ করা হয়েছে। এ সময় বাচ্চাদের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পাশপাশি আনন্দভোজের আয়োজনও করেছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। ২২ ফেব্রুয়ারি এই আয়োজনটি ঘিরে বিদ্যালয়টি সেজেছে নিজস্ব ঢংয়ে। শিক্ষার্থীরা মেতেছে আনন্দের উৎসবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী এডভোকেট এমএন জামান, লক্ষ্মীপুর জেলার সাবেক সিভিল সার্জন ড. সালাহ উদ্দিন শরীফ, লক্ষ্মীপুর মহিলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ হারুনর রশিদ বাবুল, ভবানীগঞ্জ কলেজের সহযোগী অধ্যাপক কবির উদ্দিন, জনতা ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক নাহিদ হাসান রাফি, চট্টগ্রাম নৌবাহিনীর সদস্য মো. নাজিম উদ্দিন, লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার মুক্তযোদ্ধা সংসদের সদর থানা কমান্ডার মাহবুবুল আলমসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকবৃন্দ ও শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা। সভায় সভাপতিত্ব করেন আলোকিত পাঠাগার ও আলোকিত স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা আরিফ চৌধুরী শুভ।

শুভেচ্ছা বক্তব্যে স্কুলটির প্রতিষ্ঠাতা ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক ডিপার্টমেন্টের মার্স্টাসের শিক্ষার্থী আরিফ চৌধুরী শুভ বলেন, আজ আমরা এই শিক্ষার্থীদের সুবিধা বঞ্চিত বলছি নানা কারণে, অথচ আমিও হতে পারতাম এদের মত একজন। আমার গ্রামে আমিই প্রথম দেশের সবোর্চ্চ বিদ্যাপিঠের শিক্ষার্থী হয়ে যেমন আনন্দবোধ করি, তেমনি সবার আগে এই শিক্ষার্থীদের আলোর পথে ফিরিয়ে আনাটা আমার প্রথম দায়িত্ব মনে করি। আমি চেষ্ট করে যাচ্ছি। মেঠোপথে এই শিশুরাই আগামীতে আলো ছড়াবে বলে আমার বিশ্বাস।

আয়োজনের শেষে স্থানীয় নলডগী ইবতেদায়ী মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক আবদুর রহিমের হাতে বাঙ্গালী জাতির পিতাও মুক্তিযুদ্ধের মহানায়ক বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর অফিসিয়াল ছবি তুলে দেয়া হয়। ৮০ দশকের শেষে প্রতিষ্ঠিত এই মাদ্রাসায় বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি নেই এটি আরিফ শুভর দৃষ্টিতে আনেন ঐ মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষিকা ও আরিফ শুভর বড় বোন ফেরদৌসী আক্তার। মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হিসেবে বিষয়টি মানতে পারেননি আরিফ শুভ ও তার বোন। তারপরই ঢাকা থেকে ঐ মাদ্রাসার জন্য বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর অফিসিয়াল ছবি নিয়ে এসে প্রধান শিক্ষককের হাতে তুলে দেন আরিফ শুভ।

Print Friendly, PDF & Email