রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১২:০৭ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম:
লক্ষ্মীপুরে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ও ক্রীড়া সামগ্রী বিতরণ লক্ষ্মীপুর পৌরসভার সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী আব্দুল মতলব’র ব্যাপক গণসংযোগ রায়পুরে বেদে ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর শিক্ষার্থীদের মাঝে ১৫ লাখ টাকার চেক বিতরণ রায়পুরে নবনির্মিত শহীদ মিনার উদ্বোধন করলেন নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন এমপি রায়পুর উপজেলা ডিজিটাল সেন্টার উদ্বোধন করেন এড. নয়ন এমপি রায়পুরে করোনা আক্রান্তদের মাঝে অক্সিজেন সিলিন্ডার বিতরণ উদ্বোধন শোক দিবসে লক্ষ্মীপুরে আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা ও দোয়া লক্ষ্মীপুরে বিভিন্ন ইউনিয়নে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি উপহার দিলেন নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন এমপি রায়পুর হাসপাতালে করোনা রোগীদের জন্য অক্সিজেন সিলিন্ডার হস্তান্তর রায়পুরে ক্ষতিগ্রস্থ উদ্যোক্তাদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর প্রনোদনার চেক বিতরণ

খাদ্য গুদামে ধান দিতে না পারায় হতাশ কমলনগরের ১৪’শ কৃষক

উপজেলা প্রতিনিধি / ৮৯ পড়া হয়েছে:
প্রকাশের সময়: রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১২:০৭ পূর্বাহ্ন

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে চলতি বছরে সরকার নির্ধারিত বরাদ্ধের ধান সংগ্রহ করেছে উপজেলা খাদ্য গুদাম। এছাড়া উপজেলার বোরোধান সংগ্রহ থাকা ১ হাজার ৪শ কৃষক পড়েছে মারাত্মক বেকায়দায়। সময়মতো ধান দিতে না পেরে কৃষকদের চোখে-মুখে কষ্ট ও ক্ষোভের ছাপ দেখা গেছে।
জানা গেছে, চলতি বছরে সরকারী বরাদ্ধের বিপরীতে কমলনগর উপজেলায় ২শ ৩ মে.টন বোরেধান ক্রয় সম্পন্ন করেছে খাদ্য গুদাম। এর আগে দেড় হাজারের বেশি কৃষকের একটি তালিকা প্রস্তুত করে দেয় উপজেলা কৃষি বিভাগ। তালিকায় অন্তর্ভূক্ত থাকা প্রতি কৃষক সর্বোচ্ছ ৩ মে.টন ধান দিতে পারবে বলে জানান তারা।
তালিকা ভুক্ত কৃষক মো. হানিফ, মো. শাহজাহান, মো. বাবুল ও নুরুল ইসলামসহ অসংখ্য কৃষক ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন সরকারি গুদামে ধান দেওয়ার আশা নিয়ে ধান শুকিয়ে তুলে রেখেও তা দেওয়া সম্ভব হয়ে ওঠেনি।
ওসিএলএসডি তারেকুল আলম জানান, আমরা কৃষি অফিসের চূড়ান্ত তালিকার ভিত্তিতে কৃষকদের কাছ থেকে ধান সংগ্রহ করে সরকারের দেয়া টার্গেট পূরণ করেছি।
উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মো. গিয়াস উদ্দিন জানান, বরাদ্ধ অনুযায়ী ধান সংগ্রহ করেছি। অতিরিক্ত বরাদ্ধ চেয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছি। বরাদ্ধ পেলে দ্রুত ধান সংগ্রহের কাজ শুরু করবো।
জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মংখ্যাই জানান, কমলনগরে সরকারের বরাদ্ধের বাহিরেও কৃষকরা ধান দিতে আগ্রহী বিষয়টি জেনে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। বরাদ্ধ পাওয়া মাত্রই আমরা ধান সংগ্রহের কাজ আরম্ভ করবো।