শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ০৭:২১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম:
সাউথ এশিয়া গোল্ডেন পিস এ্যাওয়ার্ড-২০২১ পেলেন শাম্মী তুলতুল লক্ষ্মীপুর সরকারি কলেজে শেখ রাসেল দেয়ালিকা উদ্বোধন লক্ষ্মীপুরে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ও ক্রীড়া সামগ্রী বিতরণ লক্ষ্মীপুর পৌরসভার সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী আব্দুল মতলব’র ব্যাপক গণসংযোগ রায়পুরে বেদে ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর শিক্ষার্থীদের মাঝে ১৫ লাখ টাকার চেক বিতরণ রায়পুরে নবনির্মিত শহীদ মিনার উদ্বোধন করলেন নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন এমপি রায়পুর উপজেলা ডিজিটাল সেন্টার উদ্বোধন করেন এড. নয়ন এমপি রায়পুরে করোনা আক্রান্তদের মাঝে অক্সিজেন সিলিন্ডার বিতরণ উদ্বোধন শোক দিবসে লক্ষ্মীপুরে আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা ও দোয়া লক্ষ্মীপুরে বিভিন্ন ইউনিয়নে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি উপহার দিলেন নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন এমপি

ভোলায় সাংবাদিকের উপর আ’লীগ সভাপতি পুত্রের সন্ত্রাসী হামলা

উপজেলা সংবাদদাতা / ৯৪৭ পড়া হয়েছে:
প্রকাশের সময়: শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ০৭:২১ পূর্বাহ্ন

ভোলায় সাংবাদিক সাগর চৌধুরির উপর মধ্যযুগীয় বর্বরতা চালিয়েছে সন্ত্রাসী নাবিল। সাংবাদিকের উপর বর্বরোচিত হামলার ঘটনা ভিডিও ধারণ করে তা আবার ফেইজবুকে লাইভ ও করেছেন পেশাদার এ সন্ত্রাসী।ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি- জসিম হায়দারের ছেলে নাবিল, বাংলাদেশ অনলাইন প্রেসক্লাব সভাপতি সাগর চৌধুরীকে আজ ৩১ মার্চ সকাল ৯ টায় উপজেলার রাজমনি সিনেমার সামনে আটক করে, অতর্কিত সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করেছে।
উক্ত ঘটনায়,ভোলার সাংবাদিক এবং অনলাইন এডিটরস কাউন্সিল ও বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স সোসাইটির পক্ষে আবুল কালাম আজাদ ও মাহমুদ হোসেন মোয়াজ্জেম, বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ পরিষদের পক্ষে মহাসচিব আব্দুল মোমিন ও উপ-প্রচার সম্পাদক মো. আমিনুর রহমান খোকন উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। সেই সাথে হামলাকারী নাবিলকে অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবী জানিয়েছেন।গরিবের নামে বরাদ্দকৃত চাল রাতের আধারে চুরি করে নেয়ায় ওই চালের ঘটনাটি উপজেলা নির্বাহি অফিসার কে সাংবাদিক জানালে এঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে ভোলার বোরহানউদ্দিনে সাংবাদিক সাগর চৌধুরীকে মোবাইল চোর ও ছিনতাইয়ের অপবাদ দিয়ে এভাবে মারধর করেছে বোরহানউদ্দিন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন হায়দারের ছেলে নাবিল। এমনটাই জানিয়েছেন নির্যাতিত সাংবাদিক সাগর চৌধুরী ও স্থানীয় সাংবাদিকরা।নির্যাতিত সাংবাদিক বোরহানউদ্দিন থানায় মামলা দায়ের করতে গেলে থানা পুলিশ সাংবাদিকদের মামলা নেয়নি। সভাপতি আর চেয়ারম্যানের প্রভাবে থানা পুলিশ দিশেহারা।ক্ষমতার অপ-ব্যবহার করে এভাবে জনসমক্ষে একজন মিডিয়া কর্মীকে পেটালো আর পাশে দাঁড়িয়ে মানুষগুলো প্রতিবাদের সাহস না পেয়ে সিনেমার দৃশ্যের মতো তাকিয়ে দেখলো!
উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতির ছেলে বলেই এভাবে দেশের ক্রান্তিকাল সময়ে একজন সাংবাদিককে পেটানোর সাহস পেয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। অপরাধীরা নাবিলের আশ্রয়দাতাসহ হামলাকারী নাবিলকে ২৪ ঘন্টার মধ্যে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন ভোলার সাংবাদিকরা।

Print Friendly, PDF & Email