শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১১:৩৪ অপরাহ্ন

শিরোনাম:
লক্ষ্মীপুরে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ও ক্রীড়া সামগ্রী বিতরণ লক্ষ্মীপুর পৌরসভার সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী আব্দুল মতলব’র ব্যাপক গণসংযোগ রায়পুরে বেদে ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর শিক্ষার্থীদের মাঝে ১৫ লাখ টাকার চেক বিতরণ রায়পুরে নবনির্মিত শহীদ মিনার উদ্বোধন করলেন নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন এমপি রায়পুর উপজেলা ডিজিটাল সেন্টার উদ্বোধন করেন এড. নয়ন এমপি রায়পুরে করোনা আক্রান্তদের মাঝে অক্সিজেন সিলিন্ডার বিতরণ উদ্বোধন শোক দিবসে লক্ষ্মীপুরে আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা ও দোয়া লক্ষ্মীপুরে বিভিন্ন ইউনিয়নে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি উপহার দিলেন নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন এমপি রায়পুর হাসপাতালে করোনা রোগীদের জন্য অক্সিজেন সিলিন্ডার হস্তান্তর রায়পুরে ক্ষতিগ্রস্থ উদ্যোক্তাদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর প্রনোদনার চেক বিতরণ

লক্ষ্মীপুরে ইউপি চেয়ারম্যান ভুলুসহ ৪জনের বিরুদ্ধে মামলা

অনলাইন সম্পাদনা / ২১৮ পড়া হয়েছে:
প্রকাশের সময়: শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১১:৩৪ অপরাহ্ন

সংবাদদাতা ॥
জেলার সদর উপজেলার তেওয়ারীগঞ্জ ইউনিয়নে বিচার না পেয়ে ইউপি চেয়ারম্যান ওমর হোসাইন ভুলুসহ ৪জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের হয়েছে। স্থানীয় প্রবাসী বশির আহম্মদের স্ত্রী পিয়ারা বেগমের দায়েরকৃত (সিআর ৪৩২/১৯) মামলাটি লক্ষ্মীপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত আমলে নিয়ে পুলিশকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে। মামলা দায়েরের পর বাদী পিয়ারা বেগম নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছেন বলে জানা যায়।
মামলার এজাহারে সূত্রে জানা যায়, তেওয়ারীগঞ্জ ইউনিয়নের চরমটুয়া গ্রামের আমির হোসেন ও সিরাজ দীর্ঘদিন থেকে প্রবাসী বশির আহম্মদের স্ত্রী পিয়ারা বেগমের নিকট থেকে ২লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে আসছে। চাঁদা দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় গত ১৭ মে (শুক্রবার) বিকেলে ওই প্রবাসীর গাছগাছড়া কেটে বিনষ্ট করে পেলে। এসময় পিয়ারা বেগম বাঁধা দিলে তাকে ও তার মেয়ে নাজমুন নাহারকে শ্লীলতাহানীসহ বেদড়ক মারধর করে। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে তাদেরকে সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়। ঘটনাটি ইউপি চেয়ারম্যান ওমর হোসাইন ভুলু ও ইউপি সদস্য মোঃ সফিক উল্যাহকে জানালে তারা বিচার না করে বরং বাদীকে দাবিকৃত চাঁদা দেওয়ার জন্য বলে এবং তা না হলে শান্তিতে বসবাস করা যাবেনা বলেও হুমকি দেয়। এতে নিরাপত্তাহীনতার আশংকায় বাধ্য হয়ে আদালতে মামলা করেন ওই প্রবাসীর স্ত্রী।
এ ব্যাপারে পিয়ারা বেগম জানান, মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান ওমর হোসাইন ভুলুকে আসামী করায় তদন্ত কর্মকর্তার সামনে আমাদেরকে হুমকীসহ আমার বৃদ্ধ বাবাকে লাথি মারেন। এরপর থেকে আমরা চরম নিরাপত্তাহীনতায় দিন কাটাচ্ছি।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে তেওয়ারীগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান ওমর হোসাইন ভুলু তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, বিষয়টির সাথে আমি জড়িত নয়। এসব আমার বিরুদ্ধে উদ্দেশ্য প্রনেদিত মিথ্যে অভিযোগ। তবে থানায় বৈঠক হয়েছিল সত্য কোন মারধরের ঘটনা ঘটে নাই।

Print Friendly, PDF & Email